1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. hostctg@gmail.com : Sports Editor : Sports Editor
  3. Onlynayeemkhanbd@gmail.com : Admin admin : Admin admin
  4. afnafrahel@gmail.com : afnafrahel@gmail.com Sports : afnafrahel@gmail.com Sports
মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৮:০১ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ

ডমিঙ্গো নিজ দেশে বরখাস্ত হলেও ঝামেলার জিনিসকেই আমরা ঢুকিয়েছি : মাশরাফি

  • সময় শনিবার, ২৭ মার্চ, ২০২১
  • ১৪৪ পঠিত

রাসেল ক্রেইগ ডমি'ঙ্গো। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের হেড কোচ। পেশাদার ক্রিকেটার না হলেও সর্বোচ্চ পর্যায়ে কোচিং করিয়েছেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকে'টে কোচ হিসেবে তার সুনাম অনেক। দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া ক্রিকেট, জাতীয় দলের হেড কোচ ছিলেন। গত বছরের ১৭ আগস্ট বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব নেন এই প্রোটিয়া কোচ।

তার অধীনে ২০১৯ সালে তিনটি টেস্ট খেলেছে বাংলাদেশ, যার মধ্যে দু’টি টেস্ট ভারতের কাছে ইনিংস ব্যবধানে হেরেছে। টাইগারদের কোচ হিসেবে নিজের অ'ভিষেকেই আফগানিস্তানের কাছে হারের তিক্ততা হজম করতে হয়েছে ডমি'ঙ্গোকে। এছাড়া সাতটি টি-টোয়েন্টি খেলেছে বাংলাদেশ, জয় এসেছে চারটিতে। ঘরের মাঠে টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ হেরেছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের কোচিং ক্যারিয়ার শুরুর আগে ২০১৭ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ ছিলেন তিনি৷ মেয়াদ শেষে আবার দায়িত্ব বাড়ানোর জন্যে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট বোর্ডকে আবেদন করলেও দক্ষিণ আফ্রিকা নতুন কোচের দায়িত্ব দেয় ওটিস গিবসনকে।

সম্প্রতি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সাথে এক সাক্ষাৎকারে মাশরাফি থেকে জানতে চাওয়া হয় জাতীয় দলের প্রধান কোচ রাসেল ডমি'ঙ্গোকে কেমন দেখছেন? জবাবে মাশরাফি বলেন, “সে তো দক্ষিণ আফ্রিকাতেও বরখাস্ত হয়েছিল, তাই না? বাদ দিয়েছিল। ঝামেলার জিনিসকেই আ মর'া আমা'দের এখানে ঢুকিয়ে রেখেছি!

বাংলাদেশ যদি সেমি-ফাইনাল খেলত (২০১৯ বিশ্বকাপে), মাশরাফিকে নিয়ে কোনো কথা 'হতো না। আর এই কোচ… তুমি আফগানিস্তানের কাছে টেস্টে হেরেছো, ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে দুটি টেস্টে হেরেছো সি গ্রে'ডের টিমের স'ঙ্গে, তোমাকে নিয়ে আদর করবে নাকি? আমা'র ক্ষেত্রে আমি সহজভাবে নিয়েছি, তাকেও নিতে হবে।

সমস্যা হলো, যে-ই বাংলাদেশের কোচ হয়ে আসে, তাকে আ মর'া এমন গ্রহণযোগ্যতা দিয়ে দেই, তার পা আর মাটিতে থাকে না। দেশি কোচের ক্ষেত্রে তা করি না। সুজন ভাই যখন কোচ হয়ে শ্রীলঙ্কায় গেলেন, তার স'ঙ্গে এখন পার্থক্য কোথায় হচ্ছে? তিনি তিন ম্যাচ হেরেছিলেন, এখানেও তো হারছেই। পার্থক্য কোথায়? এই কোচ কি করেছেন?

আমি শুনি যে কোচ নাকি বলছেন, ‘আমাকে স্যাক করুক, সমস্যা নেই।’ কারণ, সে তো জানেই, বরখাস্ত করলে পুরো এক বছরের টাকা নিয়ে চলে যাব'ে। চুক্তি তো ওরকমই। সে আবার সমানে ছুটি কা'টাতে পারবে। ফ্ল্যাট সাজানো-গোছানো, সব সুযোগ-সুবিধা আছে। আমা'দের দেশি কোচ না খেয়ে মর'ে যাচ্ছে। অথচ সারাটা বছর একজন কৃষকের মতো তারা মাঠে খাটেন। বাবুল ভাই, সালাউদ্দিন ভাই, সুজন ভাই, সোহেল ভাই, মুর্তজা ভাই, রাজিন সালেহ, আফতাবরা আসছে এখন, কারও দামই নাই।”

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্পোর্টস গসিপ.কম
Theme Customized By Sports Gossip
error: Content is protected !!