1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. hostctg@gmail.com : Sports Editor : Sports Editor
  3. Onlynayeemkhanbd@gmail.com : Admin admin : Admin admin
  4. editor@sports-gossip.com : Edotpr Edotpr : Edotpr Edotpr
রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ১১:৩৫ পূর্বাহ্ন

মুস্তাফিজ ১৩১ হলেও মিচেল স্টার্ক ১৯৫, ট্রেন্ট বোল্ট ১৬৯, , জাসপ্রিত বুমরাহ ১১৩

  • সময় সোমবার, ৯ মে, ২০২২
  • ২১ পঠিত

মুস্তাফিজুর রহমান বর্তমান বিশ্বের অন্যতম সেরা ফাস্ট বোলার। বাংলাদেশি বলেই হয়তো এতোদিনেও সময়ের সেরা বোলারদের সাথে তুলনা করা হয় না মুস্তাফিজকে। আইপিএলেও খেলেন তুলনামূলক কম মূল্যে। তবে এবার শুধু কথায় নয় পরিসংখ্যান এর মাধ্যমে দেখানো হয়েছে মুস্তাফিজ কেন বিশ্বসেরাদের কাতারে। বিশ্বের অন্যতম সেরা ৩ বোলার মিচেল স্টার্ক, ট্রেন্ট বোল্ট,জস্পৃত বু মর'া এর ওয়ানডে পরিসংখ্যান এর সাথে মুস্তাফিজের ওয়ানডে পরিসংখ্যানের তুলনা করা হোক।

মুস্তাফিজুর রহমান: ৭২ ম্যাচে ৫.১৮ ইকোনমিতে ১৩১ উইকেট শিকার করেছেন। ৫৯১ ওভার বোলিং করে ৩০৬২ রান খরচ করেছেন কা'টার মাস্টার ফিজ। ২৩.৩১ গড়ে বোলিং করেছেন কা'টার মাস্টার।

পরিসংখ্যান কিংবা ম্যাচ কন্ডিশন সব হিসেবেই কাতারেই রাখতে হবে ফিশ কে। স্টার্কের চেয়ে পরিসংখ্যানে কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও ট্রেন্ট বোল্ট,জস্পৃত বু মর'াদের চেয়ে কোন অংশেই পিছিয়ে নেই ফিজ। বরং বু মর'ার চেয়ে কিছুটা এগিয়ে আছেন মোস্তাফিজুর রহমান। ৭০ ওয়ানডেতে বু মর'ার স্বীকার করেছেন ১১৩ উইকেট। অ'পরদিকে ৭২ টি ওয়ানডে খেলা মুস্তাফিজ স্বীকার করেছেন ১৩১ উইকেট। অর্থাৎ স্পষ্টভাবেই মুস্তাফিজ উইকে'টের বিচারে ভারতের সেরা বোলারের চেয়ে বেশ এগিয়ে। পরিসংখ্যানের হিসেবে মুস্তাফিজকে সেরাদের কাতারে রাখতেই হবে। কারণ পরিসংখ্যান তো আর মিথ্যা বলেনা।

জসপ্রীত বু মর'াহ: ভারতের হয়ে ৭০ টি ওয়ানডে খেলা জস্পৃত বু মর'া উইকেট শিকার করেছেন ১১৩ টি ইকোনোমি ৪.৬৬ এবং এভারেজ ২৫.৪২। নিজের ক্যারিয়ারে মোট বল করেছেন ৬১৭ ওভারে রান দিয়েছেন ২৮৪২। সব মিলিয়ে সময়ের অন্যতম সেরা বোলার মনে করা হয় বু মর'াকে। বর্তমানে ভারতীয় দলের পেস বোলিং ডিপার্টমেন্টের নেতাও এই জসপ্রীত বু মর'াহ।

ট্রেন্ট বোল্ট: নিজের খেলা ৯৩ ম্যাচে ৫ ইকোনমিতে এবং ২৫৯৩ এভারেজে ১৬৯ উইকেট শিকার করেছেন নিউজিল্যান্ডের এই গতি তারকা। নিজের ক্যারিয়ারে ৮৫২ ওভার বল করে ৪২৬১ রান খরচ করেছেন বোল্ট। নিউজিল্যান্ডের ওয়ানডে দলের অবিচ্ছেদ্য অংশ ট্রেন্ট বোল্ট। দলের বোলিং এর নেতৃত্বে থাকেন এ ফাস্ট বোলার। ২০১৫ এবং ১৯ বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের ফাইনালে ওঠার পেছনের বোল্টের অন্যতম অবদান ছিল।

মিচেল স্টার্ক: অস্ট্রেলিয়ার এই গতি তারকাকে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার মতো কিছু নেই। ইন সুইং ইয়র্কারের জন্য সবচেয়ে বেশি পরিচিত স্টার্ক। স্টার্কের ইয়র্কার মানেই যেন স্টাম্প উপরে পড়া। ৯৯ ম্যাচে ৫.১৫ ইকোনমিতে ২২৪৬ গড়ে ১৯৫ উইকেট শিকার করেছেন স্টার্ক। ৮৪৯ ওভার বোলিং করে ৪৩৮০ রান খরচ করেছেন এই গতি তারকা। অস্ট্রেলিয়ার ২০১৫ বিশ্বকাপ জেতার পেছনে অন্যতম কারিগর স্টার্ক। ২০১৯ বিশ্বকাপের ছিলেন শীর্ষ উইকেট শিকারিদের মধ্যে। পরিসংখ্যানের দিক দিয়ে সবচেয়ে বেশি সমৃ'দ্ধ মিচেল স্টার্ক। নিজের খেলা ৯৯ ম্যাচে ১৯৫ উইকেট শিকার করেছেন। অর্থাৎ ম্যাচ প্রতি প্রায় উইকেট তুলে নিয়েছেন দুটি করে।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্পোর্টস গসিপ.কম
Theme Customized By Sports Gossip
error: Content is protected !!