1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. hostctg@gmail.com : Sports Editor : Sports Editor
  3. Onlynayeemkhanbd@gmail.com : Admin admin : Admin admin
  4. editor@sports-gossip.com : Edotpr Edotpr : Edotpr Edotpr
রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ১০:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
সালাহর প্রতিশোধ নেওয়া হল না প্রবাসীদের রেমিট্যান্সে প্রণোদনা ৫ শতাংশ করার প্রস্তাব ভিনিসিয়াসের গোলে এগিয়ে গেল রিয়াল মাদ্রিদ বিতর্কিত অফসাইডে গোল বঞ্চিত রিয়াল কুয়েতে প্রবাসীদের জন্য নতুন আবাসিক আইন চালু করলো দেশটির সরকার আজ ২৮ মে শনিবার, দেখে নিন ডলার, ইউরো, দিরহাম, রিয়াল, দিনার, রিংগিত ও রুপির রেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে স্পিন বোলিং কোচের ভূমিকায় দায়িত্ব পালন করবেন রাসেল ডমিঙ্গো এবং খালেদ মাহমুদ সুজন কাতারে কমেছে টাকার রেট, বেড়েছে স্বর্ণের দাম (তালিকা-সহ) কোহলি এই মৌসুমে যত ভুল করেছে, গোটা ক্যারিয়ারেও তা করেনি! আমার মনে পড়ে না আইপিএল ইতিহাসে বাটলারের মত এমন ব্যাটিং কেউ করেছে কি না : কুমার সাঙ্গাকারা

যুক্তরাষ্ট্রে ৩৫ ডলারে পারফিউমের দোকানে কাজ করতেন হার্শাল

  • সময় বুধবার, ৪ মে, ২০২২
  • ২৪ পঠিত

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) চোখের পলকে লাখপতি হয়ে যান ক্রিকেটাররা। এই পর্যন্ত আসতে কতটা সংগ্রাম করতে হয়, সেই গল্প শোনা যায় কারও কারও মুখে। এমনই এক জীবন সংগ্রামের কথা বললেন গত আসরের পার্পল ক্যাপ জয়ী হার্শাল প্যাটেল।

গত আইপিএলে দিল্লি ক্যাপিটালসের জার্সিতে ৩২ উইকেট নেওয়া এই পেসারকে এবারের নিলামে পৌনে এক কোটি রুপিতে ফিরিয়ে এনেছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বে'ঙ্গালুরু। গতবারের দারুণ পারফরম্যান্সে ভারতের জাতীয় দলেও অ'ভিষেক হয় তার। কিন্তু গু'জরাট থেকে উঠে আসা এই মিডিয়াম পেসারের জীবন মসৃণ ছিল না।

প্রখ্যাত ক্রিকেট সঞ্চালক গৌরব কাপুরের শো ‘ব্রেকফাস্ট উইথ চ্যাম্পিয়নস’ এ আলাপচারিতায় হার্শাল যুক্তরাষ্ট্রে থাকার সময় তার সংগ্রামের কথা জানালেন। সেখানে একটি পারফিউমের দোকানে কাজ করতেন, প্রতিদিনের উপার্জন ছিল মাত্র ৩৫ ডলার। দোকানটি ছিল এক পাকিস্তানি ব্যক্তির।

৩১ বছর বয়সী পেসার বলেছেন, ‘নিউ জার্সিতে এলিজাবেথে একজন পাকিস্তানির পারফিউমের দোকানে কাজ করতাম। গু'জরাটের মাঝারি মানের স্কুলে পড়াশোনা ছিল বলে ইংরেজিতে কথা বলতে পারতাম না। ভাষা নিয়ে ওই সময়ই প্রথম সমস্যায় পড়েছিলাম এবং অনেক অ'শালীন ভাষার ব্যবহার 'হতো, কারণ এলাকাটি ছিল লাতিনো ও আফ্রিকান আমেরিকানের।’

হার্শাল বলতে থাকলেন, ‘তারপর তাদের ইংরেজি কিছুটা বুঝতে চেষ্টা করলাম। তারা শুক্রবারে আসত এবং ১০০ ডলারে পারফিউম কিনত। সোমবার তার ফিরে এসে বলতো, ‘এই যে আমি অল্প কয়েকবার স্প্রে করেছি। এখন এটা ফেরত দিতে চাই। টেবিলে আমা'র কোনো খাবার নেই।’ এসব ছিল নিয়মিত ব্যাপার। এটা ছিল আমা'র জন্য দারুণ অ'ভিজ্ঞতাা কারণ আমি শিখেছি ক্ষুদ্র শ্রমিকের মতো কাজগু'লো আসলে কেমন হয়। সকাল ৭টায় দোকানের সামনে নামিয়ে দিতো এবং দোকান খুলতো সকাল ৯টায়। এই দুই ঘণ্টা এলিজাবেথ রেলস্টেশনে বসে থাকতাম। কাজ করতাম সাড়ে ৭টা, ৮টা পর্যন্ত। মানে দিনে ১২-১৩ ঘণ্টা ধরে কাজ করেও পেতাম মাত্র ৩৫ ডলার করে।’

গু'জরাটে জুনিয়র ক্রিকেট খেলতেন হার্শাল এবং বুঝে যান যে ভালো কিছু করতে পারবেন। বাবা-মাকে বুঝিয়ে তিনি চলে যান যুক্তরাষ্ট্রে এবং স্বপ্ন দেখতে থাকেন ক্রিকেটার হওয়ার, ‘আমি জুনিয়র ক্রিকেট খেলতাম। তারা (বাবা-মা) আমা'র ওপর আস্থা রেখেছিল। আমা'র বাবা মা বলেছিল ‘এমন কিছু করো না, যেটা আমা'দের পরিস্থিতি খারাপ করে ফেলে।’ আমি সেটা অন্তর দিয়ে গ্রহণ করেছিলাম। মোতেরায় ৭টা থেকে ১০টা পর্যন্ত অনুশীলন করতাম। ওখানে একটা স্যান্ডউইচের দোকান ছিল। আলু-মটর স্যান্ডউইচ, ভেজিটেবল স্যান্ডউইচ। টোস্ট করা স্যান্ডউইচ খেতাম না, কারণ দাম ছিল অনেক। আলু-মটর ও ভেজিটেবলের দাম ছিল ৭ রুপি, টোস্ট ছিল ১৫ রুপি।’

এই আসরে এখন পর্যন্ত ১০ উইকেট নিয়েছেন হার্শাল। আজ রাতেই চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে তার দলের ম্যাচ।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্পোর্টস গসিপ.কম
Theme Customized By Sports Gossip
error: Content is protected !!