1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. hostctg@gmail.com : Sports Editor : Sports Editor
  3. Onlynayeemkhanbd@gmail.com : Admin admin : Admin admin
  4. editor@sports-gossip.com : Edotpr Edotpr : Edotpr Edotpr
শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:৩২ পূর্বাহ্ন

তামিম-সাকিব নেই, মুশফিকও ‘বিশ্রামে’… পাকিস্তানের বিপক্ষে ‘নতুন’ বাংলাদেশ

  • সময় শুক্রবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২১
  • ১৮ পঠিত

তামিম-সাকিব নেই, মুশফিকও ‘বিশ্রামে’… পাকিস্তানের বিপক্ষে ‘নতুন’ বাংলাদেশ

দলের পরিচালক খালেদ মাহমুদের স'ঙ্গে আলাপে ব্যস্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ

দলের পরিচালক খালেদ মাহমুদের স'ঙ্গে আলাপে ব্যস্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ছবি: প্রথম আলো

২০২১ টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাবর আজম, শাহিন শাহ আফ্রিদিদের দাপুটে পারফরম্যান্সের স্মৃ'তি এখনো তরতাজা। বাংলাদেশের বিবর্ণ পারফরম্যান্সও মন থেকে সহজে মুছে যাওয়ার নয়। শেষ দুই ম্যাচে তো বাংলাদেশের ব্যাটিং ছুঁতে পারেনি তিন অঙ্কও। বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ পর্বে একটি ম্যাচও না জেতা বাংলাদেশকে নিয়ে মানসপটে ইতিবাচক কিছু আনা কঠিনই।

নিকট অতীত থেকে আ'ত্মবিশ্বা'স অনুসন্ধানের চেষ্টা করলেও কিছু মিলবে না। আজ দুপুরে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে পারফরম্যান্সের দিক থেকে দুই মেরুতে থাকা এমন দুই দলই মুখোমুখি হবে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে।

দুই দলের পার্থক্য কতটা, গতকাল দুই অধিনায়কের সংবাদ সম্মেলনেও সেটি বোঝা গেল। পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম সংবাদ সম্মেলনে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার আগেই জানিয়ে দিলেন আজকের ম্যাচে কে কে খেলবেন। এরপর বিশ্বকাপ না জেতার আ'ক্ষেপ, আগামী বিশ্বকাপ নিয়ে পাকিস্তানের পরিকল্পনা—পাকিস্তানি সাংবাদিকদের এসব প্রশ্নের উত্তরই দিয়েছেন বাবর।

ওদিকে মাহমুদউল্লাহকে দলের হাজারো সমস্যা নিয়ে কথা বলতে হলো প্রায় আধা ঘণ্টা ধরে।

বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর বাংলাদেশ ক্রিকে'টে যে বদলের হাওয়া লেগেছে, সেটি নিয়েও কঠিন প্রশ্ন শুনতে হয়েছে মাহমুদউল্লাহকে। বড় বদল এসেছে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দলে। চোটের কারণে সাকিব আল হাসান, মো হা'ম্ম'দ সাইফউদ্দিন এমনিতেই খেলতে পারছেন না। আরেক অ'ভিজ্ঞ তামিম ইকবালও লড়ছেন চোটের স'ঙ্গে।

নির্বাচকেরা মুশফিকুর রহিমকে টেস্ট সিরিজের কথা ভেবে বিশ্রাম দিয়েছেন। কিন্তু মুশফিক সেটিকে দেখছেন টি-টোয়েন্টি দল থেকে ‘বাদ’ হিসেবে। লিটন দাস ও সৌম্য সরকারও হয়েছেন বিশ্বকাপ–ব্যর্থতার বলি।

অ'ভিজ্ঞ বলতে দলের মধ্যে আছেন শুধু মাহমুদউল্লাহই। অথচ বিশ্বকাপের আগেও ঘরের মাঠের সর্বশেষ দুই সিরিজে বাংলাদেশ দল ছিল অ'ভিজ্ঞতায় ঠাসা। প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া খেলেছে খর্ব শক্তির দল নিয়ে। এক বিশ্বকাপই টি-টোয়েন্টি দলের চেহারা পাল্টে দিয়েছে। জাতীয় দলের ‘চেইন অব কমান্ডেও’ পরিবর্তন এসেছে।

খালেদ মাহমুদ হয়েছেন টিম ডিরেক্টর। কোচ রাসেল ডমি'ঙ্গোসহ বাকি কোচরা এখন কাজ করেন মাহমুদের অধীনে। এখন থেকে দল নির্বাচনেও মাহমুদের বড় ভূমিকা থাকবে। পাকিস্তান সিরিজের জন্য একঝাঁক নতুনকে নিয়ে ঘোষিত দলে মাহমুদের পছন্দের ছোঁয়া স্পষ্ট।

বিশ্বকাপ থেকে পাকিস্তান সিরিজে বাংলাদেশ দলের সবচেয়ে বড় পরিবর্তনটা আসতে যাচ্ছে টপ অর্ডারে। লিটন, সৌম্য ও সাকিব না থাকায় একদমই নতুন চেহারার টপ অর্ডার নিয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ দল। যেখানে মো হা'ম্ম'দ নাঈমের স'ঙ্গে সাইফ হাসান ও নাজমুল হোসেনের খেলার সম্ভাবনা বেশি। তরুণ এই টপ অর্ডার পাকিস্তানি বোলিংয়ের বিপক্ষে টিকতে পারবে কি না, সেটাই এখন বড় প্রশ্ন।

মাহমুদউল্লাহর এ দল নিয়ে যে খুব বেশি আ'ত্মবিশ্বা'সী হওয়ার সুযোগ নেই, সেটি আর আলাদা করে উল্লেখ করার প্রয়োজন নেই। তবে ক্রিকেটাররা এ সিরিজকে আবহ বদলের সুযোগ হিসেবে দেখতে পারেন।

বদলের হাওয়া মিরপুরের উইকে'টেও লেগেছে, এমন আভাস দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। কাল দুই দলই ঐচ্ছিক অনুশীলনে এসে মনোযোগ দিয়ে উইকেট পর্যবেক্ষণ করেছে। মাহমুদউল্লাহ স্পিনবান্ধব উইকেট থেকে বেরিয়ে এসে স্পোর্টিং উইকে'টে খেলার কথা বলেছেন তাঁর সংবাদ সম্মেলনে।

পাকিস্তানের অবশ্য উইকেট নিয়ে মাথাব্যথা থাকার কথা নয়। উইকেট যেমনই হোক, প্রতিপক্ষ পাকিস্তান দলের কন্ডিশন জয় করার হাতিয়ার আছে। গতি, স্পিন-দৃশ্যত কোনো দুর্বলতা নেই পাকিস্তানের বোলিং আ'ক্রমণে। ব্যাটিংয়ের দিক থেকেও তাদের পরিকল্পনা থাকবে নিশ্ছিদ্র।

বিশ্বকাপে যেমন শুরুতে উইকেট জমিয়ে রেখে শেষের দিকে ঝোড়ো ব্যাট করেছে পাকিস্তান, বাংলাদেশ সিরিজেও সেই ধা'রা বজায় রাখতে চাইবে বাবরের দল। তবে বিশ্বকাপে ঝড় তোলা আসিফ আলী থাকছেন না এই ম্যাচে। তাঁকে বিশ্রাম দিয়েছে পাকিস্তান।

ম্যাচের বাড়তি আকর্ষণ দর্শক। পাকিস্তান সিরিজ দিয়ে করো'নাকালে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে দর্শক ফিরতে যাচ্ছে। টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহও দর্শক প্রত্ যাব'র্তনের দিনটি স্ মর'ণীয় করতে চান ভালো পারফরম্যান্স দিয়ে, ‘ভালো লাগছে যে অনেক দিন পর দর্শক মাঠে আসবে। আমা'দের ক্রিকে'টের জন্য এটা ভালো দিক। দর্শকেরা সব সময় আমা'দের স মর'্থন দিয়েছে, আমা'দের ওপর বিশ্বা'স রেখেছে। আ মর'াও চেষ্টা করব তাদের বিশ্বা'সের অ মর'্যাদা না করতে।’

বাংলাদেশের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সর্বশেষ দর্শক দেখেছে ২০২০ সালের মা'র্চ মাসে জিম্বাবুয়ে সিরিজে। ৬১৮ দিন পর আবার সরাসরি ক্রিকেট দেখার সুযোগ পেয়ে প্রত্যাশিতভাবেই দর্শকদের মধ্যে টিকিট কেনার হিড়িক লেগেছে। শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের এত দিন বন্ধ থাকা প্রবেশদ্বার কাল পরিষ্কার–পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে। রং লাগিয়ে মিরপুর স্টেডিয়ামকে নতুন রূপ দেওয়ার চেষ্টা চলছে।

মাঠে ফেরা দর্শকদের একটি জয় উপহার দিয়ে বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলও নতুন যাত্রার শুরুটা রাঙাতে পারবে কি!

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্পোর্টস গসিপ.কম
Theme Customized By Sports Gossip
error: Content is protected !!