1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. hostctg@gmail.com : Sports Editor : Sports Editor
  3. Onlynayeemkhanbd@gmail.com : Admin admin : Admin admin
  4. editor@sports-gossip.com : Edotpr Edotpr : Edotpr Edotpr
মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১১:৫৩ অপরাহ্ন

ইংল্যান্ড কেন হারল, জানালেন নাসের হুসেইন

  • সময় বৃহস্পতিবার, ১১ নভেম্বর, ২০২১
  • ১৭ পঠিত

বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে ইংল্যান্ডছবি: এএফপি

বিশ্বকাপের দুই ফেবারিটই বিদায় নিল ফাইনালের আগে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগে ভারত ও ইংল্যান্ডকে ফেবারিট ভাবা হচ্ছিল। ভারত সেমিফাইনালের আগেই ছিটকে পড়েছে। ওদিকে দুর্দান্তভাবে বিশ্বকাপ শুরু করা ইংল্যান্ড কাল হেরে গেছে নিউজিল্যান্ডের কাছে। এক ওভার হাতে রেখে ৫ উইকে'টের জয়ে রোববারের ফাইনালে চলে গেছে নিউজিল্যান্ড।

প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠল নিউজিল্যান্ড। ওদিকে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে ওঠার সুযোগ হাতছাড়া হলো ইংল্যান্ডের। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আশা নিয়ে বিশ্বকাপে যাওয়া দলটি কেন ব্যর্থ হলো ফাইনালে উঠতে? নাসের হুসেইনের কাছে এ প্রশ্নের উত্তর আছে। সে উত্তর অবশ্য কাল ম্যাচ দেখেছেন, এমন যে কেউই দিতে পারবেন।

গতকাল শেষ ৫ ওভারে ৬০ রান দরকার ছিল নিউজিল্যান্ডের। লিয়াম লিভিংস্টোনের দুর্দান্ত এক ওভারে সেটা ৪ ওভারে ৫৭ রানের কঠিন সমীকরণ বনে গিয়েছিল। কিন্তু নিউজিল্যান্ড সেটাই মিলিয়ে ফেলল মাত্র ৩ ওভারেই। স্লগ ওভারে প্রতিপক্ষকে আট'কাতে ব্যর্থ হয়েছে ইংল্যান্ড।

কাল ১৭ তম ওভারে ২৩ রান দিয়েছেন ক্রিস জর্ডান। শেষ দুই ওভারে ২০ রান দরকার ছিল নিউজিল্যান্ডের। ১৯তম ওভারে বল করতে এসে 'হতাশ করেছেন ক্রিস ওকস। রান আট'কাতে এসে উল্টো ২০ রান দিয়ে দিয়েছেন এই পেসার।

ডেইলি মেইলের কলামে নাসের হুসেইন নিউজিল্যান্ডের কাছে হারের কারণ হিসেবে দেখিয়েছেন এই বোলিংকে, ‘গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে শেষ দিকের বোলিংই ভুগিয়েছে। যখন শেষ ওভারে বেন স্টোকস চার ছক্কা খেয়েছিল। বুধবার রাতেও সেটাই হয়েছে। ইংল্যান্ড দল এই ব্যাপারেই নিয়মিত ভালো করতে পারছে না।’

শেষ দিকে বোলিং নিয়ে যে ইংল্যান্ড সঠিক পরিকল্পনা করতে পারেনি, সেটাও মনে করিয়ে দিয়েছেন সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক, ‘পুরো টুর্নামেন্টে ইংল্যান্ড খাটো লেংথে বল করার চেষ্টা করেছে এবং ব্যাটের স্টিকারে লাগাতে চেয়েছে। এবং তারা ওই পরিকল্পনা নিয়েই খুশি ছিল। কিন্তু ভাগ্য বদলে দেওয়া সেই ওভারে জর্ডান হয় ওয়াইডে বল করেছে না হলে ব্যাটের সামনে ফেলেছে এবং জিমি নিশাম ম্যাচের রূপ বদলে দিয়েছে।’

কাল ইংল্যান্ডকে এভাবে হয়তো ভুগতে 'হতো না, যদি টাইমাল মিলস থাকতেন। স্লগ ওভারে বল করার জন্য বিশেষজ্ঞ এই বাঁ হাতি পেসারকে বিশ্বকাপ দলে ডাকাই হয়েছিল এই কাজের জন্য। কিন্তু দারুণভাবে বিশ্বকাপ শুরু করা এই পেসার চোট পেয়ে ছিটকে গিয়েছেন বিশ্বকাপ থেকে। হুসেইনও বিশ্বা'স করেন, মিলস থাকলে ম্যাচের ভাগ্য অন্য রকম 'হতে পারত, ‘ক্রিকে'টে একটা পুরোনো সত্য কথা বলা হয়, আপনি যখন দলে থাকেন না, তখনই আপনাকে আরও ভালো মনে হয়। কিন্তু শেষের ওভারগু'লোতে টাইমাল মিলসের অভাব আসলেই টের পাওয়া গেছে।’

হুসেইন অবশ্য মানছেন। হারের পর অনেক কিছুই বলা যায়। যেমন মিলসের বদলে আরেক বাঁহাতি পেসারকে খেলানোর কথাটাও এখন তাঁর মাথায় আসছে, ‘এটাও সত্য, এখন বলা খুব সোজা যে জেসন রয় বাদ পড়ার পর ডেভিড উইলিকে খেলানো উচিত ছিল। তাহলে ইংল্যান্ড আরেকজন বোলার পেত, যার কারণে বাঁহাতি বোলারের অ্যা'ঙ্গেল কাজে লাগত।’

sun

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্পোর্টস গসিপ.কম
Theme Customized By Sports Gossip
error: Content is protected !!