1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. hostctg@gmail.com : Sports Editor : Sports Editor
  3. Onlynayeemkhanbd@gmail.com : Admin admin : Admin admin
  4. editor@sports-gossip.com : Edotpr Edotpr : Edotpr Edotpr
বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:১৯ পূর্বাহ্ন

উইলিয়ামসনের জয় মানেই ক্রিকেট ভক্তের জয়, ক্রিকেটের জয়

  • সময় বৃহস্পতিবার, ১১ নভেম্বর, ২০২১
  • ৩১ পঠিত

উইলিয়ামসনের জয় মানেই ক্রিকেট ভক্তের জয়, ক্রিকে'টের জয়

২০১৯ সালে এক দিনের বিশ্বকাপের ফাইনাল। ২০২১ সালে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ী। ২০২১ সালেই টি২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে ওঠল নিউজিল্যান্ড। তিন ধরনের ক্রিকে'টের ফাইনালেই তারা। আইসিসির পর পর তিনটি প্রতিযোগিতায় নিউজিল্যান্ডের এই সাফল্যের পর এই মুহূর্তে

বিশ্বের সেরা দল বলে নিজেদের দাবি করতেই পারেন কেন উইলিয়ামসনরা। কেন উইলিয়ামসন। এই মুহূর্তে ‘জেন্টেলম্যান্স গেমের’ সেরা বিজ্ঞাপন তিনিই। ঠান্ডা মাথায় দলকে এগিয়ে নিয়ে চলেছেন একের পর এক প্রতিযোগিতায়। আইসিসির প্রতিযোগিতায় চোকার্স তকমা পাওয়া নিউজিল্যান্ডকে পাল্টে দিয়েছেন তিনিই।

২০১৯ সালে এক দিনের বিশ্বকাপের ফাইনালে উইলিয়ামসনরা হেরে ছিলেন কম বাউন্ডারি মা'রার জন্য। আইসিসির এমন ‘অদ্ভুত’ নিয়মের বিরোধিতা করে সোচ্চার হয়েছিলেন সকলে। দুঃখ পেয়েছিলেন উইলিয়ামসনদের হারে। স্মিত হেসে উইলিয়ামসন সে দিন বলেছিলেন, ‘ছেলেরা ভেঙে পড়েছে।

গোটা প্রতিযোগিতায় দুর্দান্ত খেলেছে ওরা। এক রানের ব্যাপার নয়। নিউজিল্যান্ড দলকে ধন্যবাদ এভাবে গোটা প্রতিযোগিতায় খেলার জন্য।’ বিশ্বকাপ হেরে যাওয়া অধিনায়কের গলায় ভেঙে পড়া নয়, আ'ত্মবিশ্বা'সের সুর শুনেছিল গোটা বিশ্ব।

কেন এত আ'ত্মবিশ্বা'সী উইলিয়ামসন? কারণ তিনি জানেন তার দলের ক্ষমতা। তিনি বিশ্বা'স করেন এই দল বিশ্বজয়ের ক্ষমতা রাখে। সেটাই করে দেখালেন এই বছরের জুনে। প্রবল (অতিরিক্ত) আ'ত্মবিশ্বা'সী ভারতীয় দলকে দুমড়ে মুচড়ে ফেলে দিলেন সাদাম্পটনের রোজ বোল স্টেডিয়ামে।

সেই ম্যাচে গতির আগু'ন ঝরিয়েছিলেন কাইল জেমিসনরা। প্রথম টেস্ট বিশ্বকাপ জিতে উইলিয়ামসনের মুখে সেই স্মিত হাসি। নিজেরা জিতে জয়গান করেছিলেন কোহলিদের। বুঝিয়ে দিয়েছিলেন বিপক্ষকে সম্মান না করলে বড় হওয়া যায় না। নিজের দল সম্পর্কে উইলিয়ামসন বলেন, ‘প্রত্যেকে নিজেদের সেরাটা দিয়েছে।’

কুলীন (টেস্ট) ক্রিকে'টে নিজেদের শ্রেষ্ঠ প্রমাণ করে খেলতে নামলেন টি২০ বিশ্বকাপে। পাকিস্তানের কাছে গ্রুপ পর্বে হারলেও ভারতের বিরু'দ্ধে ভেঙে পড়েননি উইলিয়ামসরা।

৮ উইকে'টে জিতে নেন ওই ম্যাচ। শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানকেও দাপটের সাথে হারিয়ে জায়গা করে নেন সেমিফাইনালে। সেখানে খেলা ছিল সেই ইংল্যান্ডের সাথে। জীবনচক্রে ফের দেখা অইন মর'্গ্যানদের সাথে। হোক না টি২০ বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপ তো।

সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডকে ৫ উইকে'টে উড়িয়ে দু’বছর আগের বদলা নিলেন উইলিয়ামসন। মুখে ওই স্মিত হাসি। প্রথমবার টি২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে কিউয়ি অধিনায়ক বলেন, ওদের বিরু'দ্ধে অনেকবার খেলেছি। জানতাম দুর্দান্ত ম্যাচ হবে। গোটা ম্যাচ জুড়ে হৃদয় দিয়ে খেলল সকলে। দুর্দান্ত খেলল ড্যারিল মিচেল।

এরকম ম্যাচে ওপেন করতে নেমে খেলা বেশ কঠিন। নিজের চরিত্র বুঝিয়ে দিলো ও। টি২০ ক্রিকেট এমন খেলা যেখানে ছোট ভুল ম্যাচের ফল ঘুরিয়ে দিতে পারে। হাতে উইকেট ছিল, সেটাই খুব গু'রুত্বপূর্ণ। জিমি নিশাম এসেই মা'রতে শুরু করল এবং খেলার রং পাল্টে দিলো। সেটাই ম্যাচ জেতার মূল কারণ।

তিনি জিতলেন। সেইসাথে জিতল হাজার ক্রিকেট ভক্ত। সেইসব ভক্ত যারা দেশের গণ্ডি দিয়ে ক্রিকেটকে ভালোবাসে না। উইলিয়ামসনের জয় আসলে সেইসব ক্রিকেট ভক্তের জয়, ক্রিকে'টের জয়।সূত্র : আনন্দবাজার

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্পোর্টস গসিপ.কম
Theme Customized By Sports Gossip
error: Content is protected !!