1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. hostctg@gmail.com : Sports Editor : Sports Editor
  3. Onlynayeemkhanbd@gmail.com : Admin admin : Admin admin
  4. editor@sports-gossip.com : Edotpr Edotpr : Edotpr Edotpr
মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৫:২০ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনকে নিয়ে মুখ খুললেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ২ উইকেট হাতে রেখেই ভারতকে হারাল বাংলাদেশ যুবারা হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে থাকবে ইয়াসির আলী আন্তর্জাতিক ম্যাচ হবে না বাংলাদেশে,সকল ধরনের ম্যাচ থেকে নিষিদ্ধ’র সিদ্ধান্ত আইসিসির মেসি, লেভানডফস্কি, রোনালদো না বেনজেমা… কে হচ্ছেন সেরা আবারও বাধা আবিদ-শফিক, হারের শঙ্কায় বাংলাদেশ স্মিথ, ওয়ার্নারের সঙ্গে ‘দ্বৈত আচরণ’ কেন? ভারত না পাকিস্তান কাকে সাপোর্ট করবে শোয়েবে এমন প্রশ্নে যে উত্তর দিলেন সানিয়া টি-টেনে প্লে-অফে চার দল চূড়ান্ত, দেখেনিন বাংলা টাইগার্সের অবস্থান মেসিকে টপকে ব্যালন ডি’অর জিততে পার লিওয়ানদোস্কি

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম দেখেন–ই না ডমিঙ্গো

  • সময় সোমবার, ১ নভেম্বর, ২০২১
  • ২৪ পঠিত

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কোচ রাসেল ডমি'ঙ্গো।ছবি: প্রথম আলো

সুপার টুয়েলভে টানা তিন ম্যাচ হারের পর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে বিদায় একপ্রকার নিশ্চিতই বাংলাদেশের। তবে এ দলের পারফরম্যান্স ঘিরে সমালোচনার শুরুটা অবশ্য আরও আগে থেকেই। প্রথম পর্বের শুরুটাই যে বাংলাদেশের হয়েছিল স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হার দিয়ে।

বিসিবি সভাপতি যেমন সিনিয়র ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্স নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন, ঠিক তেমনি দেশের সাবেক ক্রিকেটারদেরও প্রশ্ন আছে জাতীয় ক্রিকেট দলের কোচিং স্টাফের ভূমিকা নিয়ে। স্কটিশদের কাছে হারের পর সমালোচনার তোড় পৌঁছে গিয়েছিল জাতীয় ক্রিকেট দলের অন্দর মহলেও। ক্রিকেটাররাও তাঁর প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন, কেউ কেউ তো আয়নায় সমালোচকদের মুখ দেখতে বলেছেন। মোটকথা, এবারের টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মাঠে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স যা–ই হোক, মাঠের বাইরের নানা আলোচনায় বাংলাদেশই এগিয়ে।

বাংলাদেশের হেড কোচ রাসেল ডমি'ঙ্গো অবশ্য এসব নিয়ে খুব একটা চিন্তিত নন, সমালোচনা গায়েই মাখছেন না তিনি। তিনি বলছেন, এসব দেখারই সুযোগ নেই তাঁর। কারণ, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেই নেই তিনি।

সুপার টুয়েলভে শ্রীলঙ্কার পর ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছেও হেরেছে বাংলাদেশ। তবে শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশ জিততেও পারত। এ দুই ম্যাচে জয়ের সুযোগ তৈরি করেও হেরেছে বাংলাদেশ। ক্যারিবীয়দের কাছে হারটা তো ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে বড় কষ্টের—এ ম্যাচে বাংলাদেশ যে হেরেছে মাত্র ৩ রানে।

আগামীকাল দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে ডমি'ঙ্গো বললেন, সমালোচনা নিয়ে ভাবছেন না তিনি, ‘সৌভাগ্যক্রমে আমি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নেই। সংবাদমাধ্যমও পড়ি না খুব একটা। যখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছিলাম, মাছ ধ’রার দিকেই নজর ছিল, ক্রিকেট নয়। আমি তাই জানি না, সেখানে কী বলাবলি হচ্ছে এখন। তবে যেমনটা বললাম, আমা'দের তরুণদের দারুণ কিছু পারফরম্যান্স আছে। শরীফুল (ইসলাম), (মো হা'ম্ম'দ) নাঈম বেশ ভালো করেছে।’

অবশ্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে না থাকলেও বা সংবাদপত্র না পড়লেও দলকে ঘিরে ‘নেতিবাচক’ ব্যাপারের ছড়াছড়ি ‘টের’ পাচ্ছেন তিনি, ‘ইতিবাচক হওয়ার সুযোগ আছে অনেক। তবে এ দলকে ঘিরে এখন অনেক বেশি নেতিবাচক ব্যাপার ছড়িয়ে আছে। আমি জানি, নির্দিষ্ট কিছু খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফের নির্দিষ্ট কোনো ব্যাপারে সমালোচনা হচ্ছে।’

ডমি'ঙ্গো তাই নজর দিতে চান দলের ইতিবাচক দিকগু'লোতেই, ‘নজর দেওয়ার মতো ইতিবাচক অনেক দিক আছে। যখন অনেক কিছুই আপনার পক্ষে যাব'ে না, তখন হয়তো ইতিবাচক দিকগু'লোর দিকে তাকাতেই ভুলে যাব'ে অনেকে। আমা'র মনে হয়, বয়সের হিসাবে আ মর'া সবচেয়ে তরুণ একটি দল এ প্রতিযোগিতার। হয়তো দু-তিনজন খুব বেশি অ'ভিজ্ঞ খেলোয়াড় আছে বলে লোকে এটা ভুলে যায়। তবে দলের বড় একটা অংশই তরুণ। ফল ভালো না হলেও আমি ছেলেদের নিয়ে গর্বিত, তারা ভালোই লড়াই করেছে। আমি নিশ্চিত, তারা এসব অ'ভিজ্ঞতা থেকে শিখবে।’

বিশ্বকাপের আগে ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ জয়ের পর র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের। দেশের মাটিতে স্পিন-সহায়ক ও ধীরগতির উইকে'টে এ সিরিজ দুটির সমালোচনা হলেও র‍্যাঙ্কিংয়ের কথা আলাদা করে উল্লেখ করেছেন ডমি'ঙ্গো। সেটাকে দেখছেন এ সংস্করণে দলীয় ‘উন্নতি’ হিসেবেই, ‘আট' মাস আগেও যে দলটা বিশ্বের ১১ নম্বর দল ছিল, তাদের জন্য ৬ নম্বরে উঠে আসাটা বড় একটা অর্জন। বাংলাদেশ ক্রিকে'টে এটাই সর্বোচ্চ। দলটা এগিয়ে যাওয়ার পথে বড় একটা ধাপই অতিক্রম করেছে। নিশ্চিতভাবেই কিছু তরুণ খেলোয়াড় উঠে এসেছে। এ অধ্যায়টা তো শেষ হয়ে যায়নি। এ সংস্করণে উন্নতির অনেক সুযোগ আছে। তবে আমি মনে করি, তরুণ খেলোয়াড়েরা বড় দলের স'ঙ্গে পারফর্ম করে দেখিয়েছে।’

করো'নাভাইরাস পরিস্থিতিতে পরপর দুই বছর হবে দুটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ২০২২ সালে অস্ট্রেলিয়ায় 'হতে যাওয়া পরবর্তী বিশ্বকাপের দিকে নজর দিতে চান বাংলাদেশের কোচ, ‘আ মর'া জানি, এখনো অনেক দূর যেতে হবে। তবে রাতারাতি কিছু হবে না। এটা একটা প্রক্রিয়া এবং এক বছরের মাঝে আরেকটা বিশ্বকাপ আছে। সে বিশ্বকাপে দল যাতে আরও ভালো অবস্থানে থাকে, সেটিই এখন নিশ্চিত করতে হবে।’

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্পোর্টস গসিপ.কম
Theme Customized By Sports Gossip
error: Content is protected !!