1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. hostctg@gmail.com : Sports Editor : Sports Editor
  3. Onlynayeemkhanbd@gmail.com : Admin admin : Admin admin
  4. editor@sports-gossip.com : Edotpr Edotpr : Edotpr Edotpr
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১১:২২ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
রোনালদোদের জালে লেস্টারের গোল উৎসব সাইফউদ্দিনের দুর্দান্ত ইয়র্কারে শূন্য রানেই ফিরলো স্কটিশ অধিনায়ক লাসিথ মালিঙ্গার সিংহাসন কেড়ে নিলেন সাকিব মালিঙ্গাকে টপকে টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি এখন সাকিব টি-টুয়েন্টির ইতিহাসে সর্বোচ্চ উইকেট সাকিবের মডেল বানানোর কথা বলে ৫ লাখ টাকা আদায়, আসল ঘটনা জানালেন তৌসিফ খুশির খবর : স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে আজ আর মাত্র ২ উইকেট নিতে পারলে একসাথে তিনটি বিশ্ব রেকর্ড গড়বেন সাকিব আল হাসান। শোয়েব মালিককে বিশ্বকাপ দলে পেয়ে খুব খুশি বাবর আজম বন্ধুর বউকে ভাগিয়ে নেওয়ার ৭ বছর পর সেই আর্জেন্টাইন ফুটবলারের সংসার ভাঙছে ল্যাতিন আমেরিকার সেরা একাদশে ব্রাজিলের পাঁচজন, নেই মেসি

খেলা তো আর মুখে হয় না, মাঠেই খেলতে হয়: মোস্তাফিজুর রহমান

  • সময় বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২১
  • ১৬ পঠিত

খেলা তো আর মুখে হয় না, মাঠেই খেলতে হয়: মোস্তাফিজুর রহমান

বল হাতে দারুণ সময় কা'টাচ্ছেন মোস্তাফিজুর রহমান।
ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ছিলেন দুর্দান্ত।

আইপিএলে গিয়ে রাজস্থান রয়্যালসের জার্সিতেও দাপট দেখিয়েছেন।

দরজায় কড়া নাড়ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। কুড়ি ওভারের বিশ্ব আসরেও প্রতিপক্ষের

ব্যাটাররা মোস্তাফিজের স্লোয়ার-কা'টারে বিধ্বস্ত হবেন, এমন প্রত্যাশা বাংলাদেশের কোটি ক্রিকেটপ্রেমীর। আজ (বুধবার) আইপিএলের অ'ভিজ্ঞতা, বিশ্বকাপের লক্ষ্য, কন্ডিশন ও বাংলাদেশের সম্ভাবনার কথা মুঠোফোনে বাংলা ট্রিবিউনের কাছে ভাগাভাগি করেছেন মোস্তাফিজ-

বাংলা ট্রিবিউন: খুব ব্যস্ত সময় যাচ্ছে মনে হয়। কী নিয়ে ব্যস্ততা?

মোস্তাফিজুর রহমান: আইসিসির কিছু ফটোশুট ছিল। ওদের কিছু সেশনও ছিল। সব মিলিয়ে ব্যস্ত দিন ছিল। ওদের (আইসিসি) অনেক আয়োজন। একটু পর অনুশীলন আছে (অনুশীলন ইতিমধ্যে শেষ)। সব মিলিয়ে ব্যস্ত সময় কা'টাচ্ছি।

মোস্তাফিজ: জানি না…। এটা তো আমা'র জানার কথাও না (হাসি)। টিম ম্যানেজমেন্ট সি'দ্ধান্ত নেবে। আমি সত্যিই কিছু জানি না।

বাংলা ট্রিবিউন: আইপিএলের জার্সি খুলেই জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চাপানো, দেশের জার্সি গায়ে নিশ্চয় অন্যরকম অনূভূ'তি হয়?

মোস্তাফিজ: বাংলাদেশের হয়ে খেলার অনুভূ'তি সবসময়ই অন্যরকম। পৃথিবীর কোনও কিছুর স'ঙ্গে আসলে এই অনুভূ'তি মেলানো যাব'ে না। দেশ তো সবার আগে। আইপিএলে রাজস্থানের হয়ে দারুণ কিছু সময় কাটিয়েছি এটা সত্য। কিন্তু জাতীয় দলের ড্রেসিংরুমে কা'টানো সময়ের স'ঙ্গে অন্য কিছুর তুলনা চলে না। দেশের হয়ে খেলার মতো ভালো কোনও অনুভূ'তি আর নেই। এতদিন আইপিএল খেলেছি, এখন আমি প্রস্তুত দেশের জার্সিতে মাঠে নামতে।

মোস্তাফিজ: সবাই জানার চেষ্টা করেছে কীভাবে বোলিং করলে সফল হওয়া যাব'ে। আমি আমা'র অ'ভিজ্ঞতাগু'লো শেয়ার করেছি। সবাই খুব আগ্রহ নিয়েই কথাগু'লো শুনেছে। সবার মধ্যেই ভালো করার আগ্রহ আছে। প্রত্যেকেই চায় কীভাবে সফল হওয়া যাব'ে, সেই পথটা খুঁজে বের করতে। আমি আমা'র অ'ভিজ্ঞতা সবার স'ঙ্গে শেয়ার করেছি। আশা করি, কিছুটা হলেও ধারণা পেয়েছেন সবাই।

মোস্তাফিজ: আইপিএলের চেয়ে তো অবশ্যই ভালো উইকেট হবে। আইসিসির ইভেন্টে কখনোই স্লো উইকেট হয় না। স্পোর্টিং উইকেট হয়। যেখানে ব্যাটার ও বোলাররা ভালো করে তেমন উইকেটই মূলত হয়। এছাড়া বিশ্বকাপের জন্য নির্ধারিত ভেন্যুগু'লোতে সব উইকেট ব্যবহার করা হয়নি। কিছু উইকেট ঢেকে রাখা হয়েছিল। আমা'র ধারণা শারজাতে কিছুটা স্লো উইকেট 'হতে পারে, বাকি দুই ভেন্যুতে স্পোর্টিং উইকেটই হবে। তবে উইকেট যেমনই হোক, সবখানেই আমা'দের মানিয়ে নিতে হবে।

টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর স'ঙ্গে মোস্তাফিজ
বাংলা ট্রিবিউন: অধিনায়ক দেশ ছাড়ার আগে দলের এক্স-ফ্যাক্টর হিসেবে আপনার নাম বলে গেছেন। অধিনায়কের প্রত্যাশা কতটা পূরণ করতে পারবেন বলে মনে করেন?

মোস্তাফিজ: ভাই, খেলা তো আর মুখে হয় না, মাঠেই খেলতে হয়। আমি মুখ দিয়ে বলে ফেললাম, অধিনায়কের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারবো আর সেটি হয়ে গেলো! বি'ষয়টি তো তেমন নয়। আমাকে অবশ্যই প্রসেস অনুযায়ী যেতে হবে। সবকিছু ঠিকমতো হলেই কেবল আমি সফল হবো। আমি আমা'র সা মর'্থ্য-অ'ভিজ্ঞতা দিয়ে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো। জানি না কতটুকু করতে পারবো।

বাংলা ট্রিবিউন: দেশের মানুষও তো আপনাকে নিয়ে বড় আশা করছে…

মোস্তাফিজ: আমি জানি। আমাকে নিয়ে আমা'র দেশের মানুষ অনেক আশা করে আছে। অবশ্যই আমি আমা'র সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করবো। আমি অবশ্যই চাইবো দেশের জার্সিতে এমন কিছু করতে, যেটাতে দল সাফল্য পায়।

বাংলা ট্রিবিউন: ওমানের কন্ডিশন বাদে আরব আমিরাতের কন্ডিশন আপনার মুখস্তই বলা চলে। এই কন্ডিশনে বাংলাদেশ কতদূর যেতে পারবে বলে মনে করেন?

মোস্তাফিজ: আরব আমিরাতের উইকেট আর উপমহাদেশের উইকেট অনেকটা একই রকম। এশিয়া অঞ্চলের মতো যেহেতু উইকেট, আমা'দের কিছুটা সুযোগ তো অবশ্যই আছে। এখন ম্যাচে যে যত দ্রুত মোমেন্টাম নিজেদের করে নিতে পারবে, তাদের জেতার সুযোগ বেশি থাকবে। আমি একেবারে স্পেসিফিক করে বলতে পারবো না, তবে ম্যাচ বাই ম্যাচ আ মর'া পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে পারলে অনেক দূর যেতে পারবো।

বাংলা ট্রিবিউন: কোয়ালিফা’য়ার খেলে বাংলাদেশকে ভারত ও পাকিস্তানের মতো কঠিন গ্রুপে খেলতে হবে। সেমিফাইনাল পর্যন্ত যাওয়ার সুযোগ কি দেখছেন?

মোস্তাফিজ: কোনও কিছুই তো অসম্ভব নয়! টি-টোয়েন্টি ক্রিকে'টে কোনও দলই ছোট নয়। প্রতিটি দলেরই সমান সুযোগ আছে ম্যাচ জেতার। আ মর'া সবাই জানি নির্দিষ্ট দিনে যারা ভালো খেলবে তারাই জিতবে। বিশেষ করে, এই ফরম্যাটে ভবি'ষ্যদ্বাণী করা খুব কঠিন। আ মর'া ভালো করার ব্যাপারে যথেষ্ট আ'ত্মবিশ্বা'সী। দেখা যাক কী হয়!

মোস্তাফিজুর রহমান

বাংলা ট্রিবিউন: গত এশিয়া কাপ ছাড়াও আরব আমিরাতের কন্ডিশনে আইপিএল খেলার অ'ভিজ্ঞতা আছে আপনার। নিজের অ'ভিজ্ঞতা কতটা কাজে লাগবে বলে মনে করেন?

মোস্তাফিজ: অবশ্যই কাজে লাগবে। ২০১৮ সালে এশিয়া কাপ খেলেছি। দুই বছর পর একই মাঠে আইপিএল খেললাম। সব মিলিয়ে আমা'র অ'ভিজ্ঞতা আসলে ভালোই বলা চলে। অ'ভিজ্ঞতা হিসাব করলে আমি এগিয়ে আছি। আগে তো আমা'দের কোয়ালিফা’য়ার (প্রাথমিক রাউন্ড) খেলে আসতে হবে। আপাতত আমা'র ভাবনা ওমানেই। ওখান শেষ করে এসে সুপার-১২ নিয়ে ভাববো।

বাংলা ট্রিবিউন: যেহেতু বিশ্বকাপ, নিজের কিছু লক্ষ্য তো নিশ্চয়ই সেট করেছেন?

মোস্তাফিজ: এগু'লো সবাই করে। আমিও করেছি। তবে সেইসব লক্ষ্য বলার চেয়ে করে দেখানোই ভালো। আমি বলে দিলে তো সবাই সতর্ক হয়ে যাব'ে (হাসি)।

বাংলা ট্রিবিউন: বিশ্বকাপে কোন ডেলিভারিগু'লো বেশি কার্যকর হবে বলে মনে করেন?

মোস্তাফিজ: যেহেতু অতটা স্লো উইকেট না, এই কারণে কা'টার কাজে আসবে কম। প্রচুর ভেরিয়েশন দরকার হবে, মাথা খাটিয়ে বোলিং করতে হবে। শুরুতে ব্যাটারদের কিছুটা কষ্ট হলেও পরে এই ধরনের উইকে'টে রান তোলা সহজ। এই কারণে বোলারদের খুবই মাথা খাটিয়ে বোলিং করতে হবে। আমা'র মনে হয় যে বোলারদের প্রচুর ভেরিয়েশন আছে, তারা সফল 'হতে পারবে।

বাংলা ট্রিবিউন: আইপিএলে গু'রুত্বপূর্ণ সময়ে বোলিং করেছেন। কঠিন পরিস্থিতি বোলিংয়ের এমন অ'ভিজ্ঞতা কতটা উপভোগ করলেন?

মোস্তাফিজ: অধিনায়ক যখন যে চ্যালেঞ্জ দিয়েছেন, সেটি আমি গ্রহণ করেছি। এই ধরনের চ্যালেঞ্জ বারবার পড়তে থাকলে অনেক কিছু শেখা যায়। আমি অনেক কিছু শিখতে পেরেছি। শেষ কয়েকটি ম্যাচে হয়তো পারিনি। সব দিন তো আর ভালো যায় না। তবু আমি বলতে পারি, কঠিন পরিস্থিতিতে কীভাবে বোলিং করতে হয়, আমা'র জানা আছে। দেশের হয়ে খেলার সময় এই ধরনের পরিস্থিতি তৈরি হলে আমি আমা'র অ'ভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে পারবো।

মোস্তাফিজুর রহমান

বাংলা ট্রিবিউন: এবার আইপিএলের অ'ভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানতে চাই…

মোস্তাফিজ: আল হা'ম'দুলিল্লাহ। দারুণ সময় কে'টেছে। সবাই অনেক সা'পোর্ট করেছে। সবার মধ্যে আন্তরিকতা ছিল। টিমমেটরা সবাই অসাধারণ। সব মিলিয়ে আইপিএলে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে আমা'র দারুণ সময় কে'টেছে।

বাংলা ট্রিবিউন: শুরুর মোস্তাফিজ আর বর্তমান মোস্তাফিজের মধ্যে অনেক পার্থক্য। ক্রিকেট নিয়ে ভাবনার জগতেও অনেক পরিবর্তন এসেছে। আপনি কি সেটা অনুভব করেন?

মোস্তাফিজ: জানি না। আপানারা ভালো বলতে পারবেন। আপনারা আমা'র খেলা দেখেন, কথাও শোনেন। আপনারাই ভালো বলতে পারবেন (হাসি)। সবচেয়ে বড় কথা- আমি পরিবর্তন টের পাই না। আমা'র মনে হয় আমি আগে যা ছিলাম, এখনও তা-ই আছি।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্পোর্টস গসিপ.কম
Theme Customized By Sports Gossip
error: Content is protected !!