1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. hostctg@gmail.com : Sports Editor : Sports Editor
  3. Onlynayeemkhanbd@gmail.com : Admin admin : Admin admin
  4. editor@sports-gossip.com : Edotpr Edotpr : Edotpr Edotpr
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৪:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
হুবহু নিজের মত আরেক সালাহকে দেখে বেজায় খুশি মোহাম্মদ সালাহ ভিনি নাকি ফাতি, কে হবে এল ক্লাসিকোর নতুন রাজা? টি-২০ বিশ্বকাপের সেরা বোলার-ব্যাটারের নাম ভবিষ্যৎবানী করলেন ব্রেট লি বাংলাদেশ অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়েছে, জয় প্রাপ্য ছিল : পিএনজি অধিনায়ক ভক্তদের জন্য একদিন হলেও বাংলাদেশের হয়ে খেলতে চাই: আশরাফুল ভারতের কাছে হারলে সেমিফাইনালে যেতে পারবে না পাকিস্তান! ভারত, পাকিস্তানের গ্রুপে না পড়ে ভালোই হয়েছে-ঃ আশরাফুল সুপার টুয়ালেভে বাংলাদেশের বিপক্ষে চাপে থাকবে অস্ট্রেলিয়ারা ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ যেন ফাইনালের আগে আরেক ফাইনাল : ইনজামাম বিশ্বকাপে বড় চমক দিতে পারে আফগানিস্তান আফগানিস্তান ক্রিকেট দল

আইপিএলে যেমন ছিল সাকিব-মুস্তাফিজের পারফরম্যান্স

  • সময় শুক্রবার, ৮ অক্টোবর, ২০২১
  • ২৮ পঠিত

আইপিএলে যেমন ছিল সাকিব-মুস্তাফিজের পারফরম্যান্স

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) এখনও শেষ না হলেও আইপিএলকে ঘিরে বাংলাদেশিদের উন্মা'দনা অনেকটাই কমে গেছে। আইপিএলে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করা

সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানকে চলতি আসরে আর দেখা যাব'ে না। বিশ্বকাপ ব্যস্ততার আগে চতুর্দশ আসরে কেমন ছিল তাদের পারফরম্যান্স, তাতে চোখ বুলানোর যথার্থ সময়ই তাই এখনই।

আইপিএল নিয়ে বাংলাদেশিদের উন্মা'দনা কমে যাওয়ার কারণ- এবারের আসরে সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানের পথচলা শেষ হয়ে গেছে একসাথে।

মুস্তাফিজরা লিগ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচ খেলে ইতি টেনেছেন এবারের যাত্রার। সাকিবের দল কোয়ালিফা’য়ার পর্বে খেললেও সাকিবকে ফিরতে হবে জাতীয় দলের কাছে।

এবারই প্রথম মুস্তাফিজ আসরে দলের সবগু'লো ম্যাচে খেলেছেন। চোটের কারণে রাজস্থান রয়্যালসের বেশ কয়েকজন তারকা মাঠে অনিয়মিত ছিলেন।

পেস বোলিং আ'ক্রমণের দায়িত্বটা তাই নিতে হয়েছে মুস্তাফিজকেই। তার বিচক্ষণ বোলিং আর মেধা কাজে লাগিয়ে রাজস্থানে অল্পদিনেই পেয়ে যান খ্যাতি ও ভালোবাসা।

দলীয় ব্যর্থতার ছাপ অবশ্য আছে মুস্তাফিজের এ বছরের পারফরম্যান্সের পরিসংখ্যানে। মোট ১৪ ম্যাচ খেলেছেন, তাতে শিকার করেছেন ১৪ উইকেট। দল আরও ভালো করলে মুস্তাফিজের পরিসংখ্যান আরও উজ্জ্বল থাকত,

তা অন্তত তাদের কাছে স্পষ্ট যারা মুস্তাফিজের খেলা উপভোগ করেছেন। স্লগ ওভারে যেভাবে মুন্সিয়ানা দেখিয়েছেন, তাতে গোটা আসরেই মুস্তাফিজের বিচরণ অন্যতম আলোচিত বোলার হিসেবে।

এবার মুস্তাফিজের সেরা বোলিং ফিগার ২০ রানের খরচায় ৩ উইকেট। গড়ে প্রতি ৩১.১৪ রানের খরচায় একটি করে উইকেট শিকার করেছেন তিনি। ওভারপ্রতি রান দিয়েছেন ৮.৪১ করে। শেষ তিন ম্যাচে ছিলেন খরুচে,

তা না হলে ইকোনমি রেট ও গড় আরও ভালো রাখার সুযোগ ছিল। ব্যাট হাতে মুস্তাফিজ নামতেন ব্যাটিং অর্ডারের শেষ প্রান্তে। একটি ম্যাচে ৮ রান করে অ'পরাজিত ছিলেন। টুর্নামেন্টে মুস্তাফিজের মোট রানও ৮।

মুস্তাফিজের তুলনায় অনেক কম সুযোগ পেয়েছেন সাকিব। কলকাতার হয়ে এবারের আসরে খেলা হয়েছে পাঁচটি ম্যাচ। পরিসংখ্যান বলে দেওয়া যায় এক লাইনেই।

তবে দলকে শেষ চারের দৌড়ে রাখতে সাকিবের ছিল বড় অবদান। লিগ পর্বের শেষ দুই ম্যাচে একাদশে ফিরে সাকিবই যেন বয়ে এনেছিলেন সাফল্যের হাওয়া।

৫ ম্যাচে সাকিব ব্যাট করার সুযোগ পেয়েছেন মাত্র ৩ বার। সর্বোচ্চ ইনিংসটি ২৬ রানের। বরাবরের মত এবারও বেশি নজর কেড়েছেন বল হাতে। ইকোনমি রেট ছিল ৬.৮০। প্রতি ২৫.৫০ রান খরচায় শিকার করেছেন একটি করে উইকেট।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্পোর্টস গসিপ.কম
Theme Customized By Sports Gossip
error: Content is protected !!