1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. hostctg@gmail.com : Sports Editor : Sports Editor
  3. Onlynayeemkhanbd@gmail.com : Admin admin : Admin admin
  4. editor@sports-gossip.com : Edotpr Edotpr : Edotpr Edotpr
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:২৬ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
দ্বিতীয় ম্যাচেও হেরে গিয়ে বাদ পড়ার শঙ্কায় চ্যাম্পিয়নরা অনেক মেয়েই আমাকে কিউট বলে’ হাফিজের অবিশ্বাস্য ক্যাচ নিলেন কনওয়ে; শতাব্দীর সেরা তালিকায় রাখছেন ভক্তরা! (ভিডিও) বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে জয় স্মরণীয় করে রাখতে ২৫০ শিশুর পড়াশোনার সম্পূর্ণ দায়িত্ব নিলেন বাবর আজম লিটন আমাদের দলের মূল ক্রিকেটার। দুইটা ক্যাচ ছাড়াতেই লিটন দাসের অবদান শেষ হয়ে যায়নি : ওটিস গিবসন পাকিস্তানের অলিতে গলিতে বরুণের মত বোলার ঘুরে বেড়ায়! Md Rakib হার্দিককে নিয়েই ভুল করেছে ভারত: ইনজামাম দুঃসময়ে টিম ম্যানেজমেন্টকে পাশে পাচ্ছেন লিটন সকল সমালোচনা কে পিছনে ফেলে উড়েয়ে দিতে হবে ইংল্যান্ডকে এবার মাশরাফির মন্তব্যের পাল্টা জবাব দিলেন কোচ গিবসন

দূর্বলতা প্রকাশ পাবে বলেই ভারত খেলতে চায়না পাকিস্তানের সাথে

  • সময় মঙ্গলবার, ৫ অক্টোবর, ২০২১
  • ৪০ পঠিত

দূর্বলতা প্রকাশ পাবে বলেই ভারত খেলতে চায়না পাকিস্তানের সাথে

এক সময়ে তীব্র উত্তেজনাকর ক্রিকেট মানেই ছিলো ভারত-পাকিস্তান লড়াই।

তাদের মহারণ দেখতে মুখিয়ে থাকতো ক্রিকেটবিশ্ব। কালের পরিক্রমায় সবই অতীত।

নিরাপত্তাজনিত জটিলতা কিংবা দ্বিপাক্ষিক অস্থিরতায় আর আয়োজিত হয়না ভারত পাকিস্তান ম্যাচ।

কিন্তু পাকিস্তান কিংবদন্তী আব্দুল রাজ্জাক বলছে অন্য কথা।

তিনি বলেন, ভারতের দূর্বলতা প্রকাশ পাবে তাই তারা পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে চায়না।

ভারত-পাকিস্তানের সবশেষ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ হয়েছে ২০১৩ সালে। সেবার তিন ওয়ানডে ও দুই টি-টোয়েন্টির ছোট সফরে ভারতে গিয়েছিল পাকিস্তান। দুই দলের টেস্ট সিরিজ সবশেষ হয়েছে সেই ২০০৭ সালে। এখন স্রেফ আইসিসি টুর্নামেন্টগু'লোয় দেখা হয় এই দুই দলের।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বি এই দুই দলের লড়াই থমকে যাওয়ার রাজনৈতিক কারণই প্রকাশ্য। তবে রাজ্জাক দেখছেন ক্রিকেটীয় কারণও। পাকিস্তানের একটি টিভি চ্যানেলে রাজ্জাককে জিজ্ঞেস করা হয়,

‘পাকিস্তানের মতো পেস বোলার কিংবা অলরাউন্ডার কি ভারতের আছে নাকি এখানে তুলনাই চলে না?’ সাবেক এই পেস বোলিং অলরাউন্ডারের উত্তর, পাকিস্তান এখানে যোজন যোজন এগিয়ে।

“আমা'র মনে হয় না, পাকিস্তানের স'ঙ্গে লড়াই করতে পারবে ভারত। পাকিস্তানের যে ধরনের প্রতিভা আছে, পুরোপুরিই ভিন্নতা। ভারত ও পাকিস্তানের যে খেলা হচ্ছে না, আমা'র মনে হয় না তা ভালো কিছু। এটা খুব রোমাঞ্চকর ছিল এবং ক্রিকেটাররা কতটা চাপ নিতে পারে, তা দেখানো সুযোগ ছিল এখানে।”

“এখন আর সেই সুযোগ নেই। আমা'র মনে হয়, এই লড়াই যদি চলতে থাকত, লোকে দেখতে পেত যে, পাকিস্তানের যে ধরনের প্রতিভা আছে, ভারতের তা নেই।”

রাজ্জাক এমনকি ফিরে গেলেন অতীতেও। ইতিহাসের নানা বাঁক ঘুরে তুলনা করলেন দুই দেশের গ্রে'ট ক্রিকেটারদের। সেখানেও তিনি পাকিস্তানের ধারেকাছে দেখেন না ভারতকে।

“ভারতের দলও ভালো, অস্বীকার করছি না। তাদেরও ভালো ক্রিকেটার আছে। তবে পাশাপাশি রাখলে, আমা'দের ছিল ই মর'ান খান, তাদের ছিল কপিল দেব। তুলনা করলে, ই মর'ান অনেক ভালো ছিল। তার পর আমা'দের ছিল ওয়াসিম আকরাম। তাদের তো এই ধরনের ক্রিকেটারই ছিল না।”

“আমা'দের জাভেদ মিয়াঁদাদ ছিল, তাদের ছিল গাভাস্কার। কোনো তুলনা চলে না। এরপর আমা'দের ছিল ইনজামাম, ইউসুফ, ইউনিস, শহিদ আফ্রিদি… তাদের ছিল দ্রাবিড়, শেবাগ…। সার্বিকভাবে দেখলে, পাকিস্তান ভালো ক্রিকেটার বের করেছে বেশি।

এসবই বড় কারণ। এই কারণেই পাকিস্তানের স'ঙ্গে খেলতে চায় না ভারত।”এক সময়ে তীব্র উত্তেজনাকর ক্রিকেট মানেই ছিলো ভারত-পাকিস্তান লড়াই।

তাদের মহারণ দেখতে মুখিয়ে থাকতো ক্রিকেটবিশ্ব। কালের পরিক্রমায় সবই অতীত।

নিরাপত্তাজনিত জটিলতা কিংবা দ্বিপাক্ষিক অস্থিরতায় আর আয়োজিত হয়না ভারত পাকিস্তান ম্যাচ।

কিন্তু পাকিস্তান কিংবদন্তী আব্দুল রাজ্জাক বলছে অন্য কথা।

তিনি বলেন, ভারতের দূর্বলতা প্রকাশ পাবে তাই তারা পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে চায়না।

ভারত-পাকিস্তানের সবশেষ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ হয়েছে ২০১৩ সালে। সেবার তিন ওয়ানডে ও দুই টি-টোয়েন্টির ছোট সফরে ভারতে গিয়েছিল পাকিস্তান। দুই দলের টেস্ট সিরিজ সবশেষ হয়েছে সেই ২০০৭ সালে। এখন স্রেফ আইসিসি টুর্নামেন্টগু'লোয় দেখা হয় এই দুই দলের।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বি এই দুই দলের লড়াই থমকে যাওয়ার রাজনৈতিক কারণই প্রকাশ্য। তবে রাজ্জাক দেখছেন ক্রিকেটীয় কারণও। পাকিস্তানের একটি টিভি চ্যানেলে রাজ্জাককে জিজ্ঞেস করা হয়,

‘পাকিস্তানের মতো পেস বোলার কিংবা অলরাউন্ডার কি ভারতের আছে নাকি এখানে তুলনাই চলে না?’ সাবেক এই পেস বোলিং অলরাউন্ডারের উত্তর, পাকিস্তান এখানে যোজন যোজন এগিয়ে।

“আমা'র মনে হয় না, পাকিস্তানের স'ঙ্গে লড়াই করতে পারবে ভারত। পাকিস্তানের যে ধরনের প্রতিভা আছে, পুরোপুরিই ভিন্নতা। ভারত ও পাকিস্তানের যে খেলা হচ্ছে না, আমা'র মনে হয় না তা ভালো কিছু। এটা খুব রোমাঞ্চকর ছিল এবং ক্রিকেটাররা কতটা চাপ নিতে পারে, তা দেখানো সুযোগ ছিল এখানে।”

“এখন আর সেই সুযোগ নেই। আমা'র মনে হয়, এই লড়াই যদি চলতে থাকত, লোকে দেখতে পেত যে, পাকিস্তানের যে ধরনের প্রতিভা আছে, ভারতের তা নেই।”

রাজ্জাক এমনকি ফিরে গেলেন অতীতেও। ইতিহাসের নানা বাঁক ঘুরে তুলনা করলেন দুই দেশের গ্রে'ট ক্রিকেটারদের। সেখানেও তিনি পাকিস্তানের ধারেকাছে দেখেন না ভারতকে।

“ভারতের দলও ভালো, অস্বীকার করছি না। তাদেরও ভালো ক্রিকেটার আছে। তবে পাশাপাশি রাখলে, আমা'দের ছিল ই মর'ান খান, তাদের ছিল কপিল দেব।

তুলনা করলে, ই মর'ান অনেক ভালো ছিল। তার পর আমা'দের ছিল ওয়াসিম আকরাম। তাদের তো এই ধরনের ক্রিকেটারই ছিল না।”

“আমা'দের জাভেদ মিয়াঁদাদ ছিল, তাদের ছিল গাভাস্কার। কোনো তুলনা চলে না। এরপর আমা'দের ছিল ইনজামাম, ইউসুফ, ইউনিস, শহিদ আফ্রিদি… তাদের ছিল দ্রাবিড়, শেবাগ…।

সার্বিকভাবে দেখলে, পাকিস্তান ভালো ক্রিকেটার বের করেছে বেশি। এসবই বড় কারণ। এই কারণেই পাকিস্তানের স'ঙ্গে খেলতে চায় না ভারত।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্পোর্টস গসিপ.কম
Theme Customized By Sports Gossip
error: Content is protected !!